হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট অ্যাটাকের কারন কি কি ? কিভাবে প্রতিরোধ করা যায় - heart attack - healthshocheton

হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট অ্যাটাকের কারণ কি কি? কিভাবে প্রতিরোধ করা যায়?


আপনার হার্টে যদি কোনো প্রকার সমস্যা দেখা যায়, তাহলে আপনি কি সমস্যা বুঝতে পারেন ? হার্ট অ্যাটাক বা হার্ট স্ট্রক এমনি এক ভয়ংকর রোগ যা কখনই আমাদের অবহেলা করা উচিত নয়। কারন বেশির ভাগ যে সকল খাবার আমরা প্রতিদিন খাই, তা আমাদের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনাকে আরো বৃদ্ধি করে। জানেন তো এখন ভেজালে ভরা পৃথিবী। তাই আমাদের উচিত সবসময় সতর্ক থাকা। খাবার ছাড়াও আরও অনেক কিছুই রয়েছে যার কারনে আমাদের হার্ট অ্যাটাক হয়। কিন্তু পৃথিবীতে অনেক রিসার্চ ও পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে বেশিরভাগই হার্ট অ্যাটাক হয়েছে অসাস্থকর খাবার থেকে। তাহলে চলুন আজ জেনে নেয়া যাক, কি কি কারণে হার্ট অ্যাটাক হয়। হার্ট অ্যাটাকের লক্ষন কি কি?
হার্ট অ্যাটাকের কারণ
হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ

সব ধরনের হৃদরোগে পরিস্কার বিপদ সংকেত থাকেনা। এমনকি কিছু হৃদরোগ এর সংকেত বুকের ভেতর দেখা যায়না। তাই আপনার হার্টে কি ঘটতে চলেছে এটা সবসময় বোঝাটা এত সহজ নয়। আপনি যদি আপনার হার্টে সমস্যা নিয়ে নিশ্চত না হতে পারেন তাহলে ডাক্তার এর সাথে দেখা করে পরামর্শমতো পদক্ষেপ নিতে পারেন। কখনো অবহেলা করবেন না। এটা নিতান্তই সত্যি যে, আপনি যদি ৬০ অথবা তার উর্ধে হন তাহলে আপনার হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে বেশি।

নিম্নে ১০ টি হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট অ্যাটাকের কারণ আলোচনা করা হয়েছে: যা কখনই আপনার এড়িয়ে চলা উচিত নয়।


  1. Chest discomfort (বুকের ভিতর বেদনা অনুভব করা)
  2. Pain that spreads to the arm(শরীর ও বাহুতে ব্যথা)
  3. Get exhausted easily( অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পরা)
  4. Cough that never quit( অনেক সময় যাবত কাশি)
  5. Snoring( অতিরিক্ত নাক ডাকা)
  6. Sweating (অতিরিক্ত ঘামা)
  7. Irregular heart beat ( অনিয়মিত হার্ট বিট করা)
  8. Throat or jaw pain(গলা ব্যথা)
  9. Legs , feet and ankles are swollen (পা ও পায়ের পাতা swollen হওয়া)
  10. Feel dizzy or lightheaded ( মাথা চক্কর বা মাতাল  অনুভব করা)

1) Chest Discomfort 


এটি হচ্ছে হৃদরোগের  সবচেয়ে common সংকেত। আপনার যদি হার্ট অ্যাটাক অথবা ব্লক artery হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, তাহলে আপনি বুকের ভিতর শক্ত, ব্যথা বা চাপ অনুভব করবেন। এই অনুভবটা কারো কারো ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। কেউ বলে , যেন তাদের বুকের ওপর হাতি বসেছে, কেউ আবার বলে যে, এটি একটি চিমটি কাটার মত ব্যথা। এই অনুভব সাধারণত কয়েক মিনিটের হয়ে থাকে। যখন আপনি বিশ্রাম নিচ্ছেন বা কোন কাজ করছেন।

যদি এটি সংক্ষিপ্ত ব্যথা হয়, যদি আপনি স্পর্শ বা চাপ দেওয়ার পরও তেমন কোনো ব্যথা অনুভব হয়না, তাহলে হয়তো এটি আপনার হার্টে সমস্যা নয়। কিন্তু তারপরও আপনার ডক্টর এর সাথে পরামর্শ করা উচিত হবে। তাছাড়া যদি এই ব্যথাটা কয়েক মিনিট ধরে চলতে থাকে, সঙ্গে সঙ্গে কোনো এমার্জেন্সি সার্ভিস কে কল করা উত্তম।

সবসময় মনে রাখবেন যে, বুকের ব্যথা ছাড়াও আপনার হার্টে সমস্যা দেখা দিতে পারে। বিশেষ করে মহিলাদের ক্ষেত্রে এটি ঘটে।

2) Pain that spreads to the arm


আরেকটি ক্লাসিক হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হলো, যে ব্যথা শরীরের বাম দিকে বিকৃত করে।
এটি প্রায় সবসময় বুকের ভেতর থেকে শুরু হয়ে বহিরাগত হয়। অনেক রিসার্চে পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে, শুধুমাত্র আর্ম (arm) এর ব্যথা থেকে হার্ট অ্যাটাক শুরু হয়েছে।

3) Get exhausted easily


কোন কিছু বহন করতে বা সিড়ি বেয়ে উপরে উঠতে, দৌড়ানোর সময় যদি আপনি অল্পতেই ক্লান্তি বোধ করেন, যা কিনা আগে করতে অতটা ক্লান্তি বোধ করেন নি। তাহলে অবশ্যই আপনার উচিৎ ডাক্তার এর সাথে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা। কারন বিশেষজ্ঞদের মতে, ছুট ছুট ব্যথার চেয়ে এরকম ক্লান্তিকে অনেক বেশী প্রাধান্য দেয়া উচিত।

4) Cough that never quit


অনেক ক্ষেত্রেই এটি সাধারণত হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ নয়। কিন্তু যদি আপনার আগে থেকে কোনো ধরনের হৃদরোগ থাকে, তাহলে এটি অবশ্যই ভাবনার বিষয়।

যদি আপনার কাশি লম্বা সময় ধরে হয়ে থাকে এবং সাদা অথবা পিঙ্ক কালার mocus (শ্লেমা) হয়। তাহলে এটি হয়ত হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। এটি সাধারণত ঘটে যখন হার্ট দেহের চাহিদা পূরণ করতে অক্ষম, আর তাই রক্ত ফুসফুসের সাথে লিক হতে থাকে। যখন এই ধরনের লক্ষণ দেখতে পাবেন সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের সাথে   যোগাযোগ করুন।

5) Snoring


ঘুমের সময় নাক ডাকা স্বাভাবিক। কিন্তু জানেন কি, এই নাক ডাকা অস্বাভাবিক হলে তা হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। নাক ডাকার শব্দ শুনতে যদি অস্বাভাবিক লাগে, ও আপনি যদি টের পান যে, আপনার শ্বাস কষ্ট হচ্ছে নাক ডাকার সময়। তাহলে অবশ্যই এর জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে। এখন অনেক ভালো ভালো চিকিৎসা রয়েছে, যা নাক ডাকার সমস্যা চিরতরে বন্ধ করে দিতে পারে। তাই কোন প্রকার রিস্ক না নিয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করোন।

6) Sweating


অতিরিক্ত পরিমাণে ঘাম ঝরাও হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। যদিও আবহাওয়া ঠান্ডা কিন্তু অকারণেই শরীর থেকে ঘাম ঝরছে, তাও আবার ঠান্ডা ঘাম তাহলে এটি খুব রিস্ক ফ্যাক্টর। যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব হয় ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

7)Irregular heart beat


এই লক্ষণটি খুবই কমন হার্ট অ্যাটাকের ক্ষেত্রে। আপনি যদি দৌড়ান বা নার্ভাস ফীল করেন অথবা উত্তেজনা হন তাহলে আপনার হার্ট বিট বাড়বে এটা স্বাভাবিক। কিন্তু অকারণে যদি অস্বাভাবিক ভাবে আপনার হার্টবিট খুব তেজ হয় তাহলে লক্ষণ খারাপ।

এই লক্ষণটি হয়ে থাকে সাধারণত যখন আপনার দেহে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফিন থাকে এবং ঘুমের অভাবে। তাই এই লক্ষণটি এড়িয়ে যাবেন না।

8)Throat or jaw pain


গলা বা চোয়াল ব্যথা সাধারণত কোনো হৃদরোগ সম্পর্কিত না। কিন্তু যখনি এরকম ব্যথার কারণে আপনার বুকে ব্যথা বা চাপ অনুভব করবেন তখন এটা ভাবার বিষয় বটে।

9)Legs,feet and ankles are swollen


এই লক্ষণটি যখন দেখা যায়, তার মানে আপনার হার্ট রক্তের জন্য যে পরিমাণ পাম্প করার দরকার তা করতে পারেনা।

এর ফলে যখন পাম্প যথেষ্ট নয়, তখনই রক্ত শিরার মাঝে ব্যাক আপ করে এবং তা bloating এ পরিণত হয়। এবং এটি হার্ট অ্যাটাক এর দিকে টার্নিং করতে পারে। হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ।

10) Feel dizzy or lightheaded


অনেক কিছুর কারণে হয়তো আপনি আপনার ব্যালেন্স হারিয়ে ফেলতে পারেন অথবা মনে হতে পারে যে আপনি হয়তো পরে যাচ্ছেন। হয়তো আপনার খাবার কিংবা ঘুম যথেষ্ট নয়। হয়তো আপনি অল্পতেই ক্লান্তি বোধ করেন। এধরনের লক্ষণ এর সাথে সাথে যদি আপনার বুকে ব্যথা বা চাপ অনুভব করেন, তার মানে আপনার ব্লাড প্রেসার ড্রপ হয়ে গিয়েছে। আপনার উচিৎ সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে তার সমাধান করা।
হার্ট অ্যাটাকের কারণ
হার্ট অ্যাটাকের কারণ 

এই সকল হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ গুলোকে কখনো এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়। তাই আমাদের সবসময় সচেতন থাকতে হবে যেন হার্ট অ্যাটাক না হয়। এই আর্টিকেল যদি আপনার উপকারে আসে তাহলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন এবং তাদেরকেও সচেতন করে তুলোন। হ্যাঁ, অবশ্যই কমেন্ট করতে ভুলবেন না।

Healthshocheton সবসময় আপনাদের পাশে সব ধরনের স্বাস্থবিষয়ক টিপস নিয়ে। 
হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট অ্যাটাকের কারন কি কি ? কিভাবে প্রতিরোধ করা যায় - heart attack - healthshocheton হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ ও হার্ট অ্যাটাকের কারন কি কি ? কিভাবে প্রতিরোধ করা যায় - heart attack - healthshocheton Reviewed by Healthshocheton on July 04, 2019 Rating: 5

No comments:

Powered by Blogger.